দর্শন বা ফিলোসোফি সাবজেক্ট রিভিউ

শাহরিয়ার আহসান চৌধুরী ধ্রুব

দর্শন কাকে বলে?

দর্শন বা ফিলোসোফি শব্দটি শুনলেই আমাদের সক্রেটিস, প্লেটো, এরিস্টটলসহ নানা দার্শনিকদের কথা মনে পড়ে। দর্শন পৃথিবীর সবথেকে প্রাচীন সাবজেক্টগুলোর একটি। একে সকল বিজ্ঞানের মা নামে অভিহিত করা হয়।

দর্শনের জনক থেলিস
দর্শনের জনক থেলিস

বাংলাদেশে মানবিক বিভাগের ছাত্রছাত্রীরা কলেজ লেভেলে এসে প্রথম দর্শনশাস্ত্রের সাথে পরিচিত হন। তখন তারা ফিলোসোফির একটি অংশ হিসেবে যুক্তিবিদ্যা বা লজিক পড়াশোনা করেন। তাঁরা বিশ্ববিদ্যালয়ে এসে ফিলোসোফি সম্পর্কে বিষদভাবে জানার সুযোগ পান। ইউরোপ,লাতিন আমিরিকাসহ অনেক দেশে মাধ্যবিক পর্যায় থেকেই শিক্ষার্থীদেরকে ফিলোসোফি পড়ানো হয়। বিশ্বে প্রায় প্রতিটি বিশ্ববিদ্যালয়েই ফিলোসোফি বিষয়টি পড়ানো হয়।

দর্শন বা ফিলোসোফি সাবজেক্টের প্রকৃতি

ডিগ্রির মান BA
কোর্স অনার্স,মাস্টার্স,এমফিল,পিএইচডি
মেয়াদ ৪ বছর(অনার্স)
সেমিস্টার/ইয়ার বিশ্ববিদ্যালয়ের নিয়ম অনুযায়ী

দর্শন বা ফিলোসোফি কেন পড়বো

জগৎ, জীবন, মানুষের সমাজ, তার চেতনা এবং জ্ঞানের প্রক্রিয়া প্রভৃতি আলোচনাকে ফিলোসোফি বা দর্শন বলা হয়। ফিলোসোফির শিক্ষার্থীরা স্পষ্টভাবে লিখতে এবং সমালোচনামূলক চোখে পড়তে শিখেন।তাঁরা যুক্তি গঠন ও তা জীবনে প্রয়োগ করতে শিখেন, ফলে তারা অন্যান্য মানুষ অপেক্ষা অধিক দক্ষতার সাথে সিদ্ধান্ত নিতে সক্ষম হন। ফিলোসোফি মানুষকে নৈতিকতা শেখায়। দর্শন অধ্যয়নের মধ্য দিয়ে একজন শিক্ষার্থী নৈতিক মূল্যবোধসম্পন্ন মানুষ হিসেবে গড়ে ওঠেন। ফিলোসোফি শিক্ষার্থীদের প্রশ্ন করতে,প্রশ্নের উত্তর খুঁজতে ও উত্তর যাচাই করতে উদ্ভুদ্ধ করে।

একজন শিক্ষার্থী ফিলোসোফি অধ্যয়নের মাধ্যমে জ্ঞানের প্রতি ভালোবাসা ও যুক্তি বিশ্লেষণ করে উত্তম সিদ্ধান্ত গ্রহণের ক্ষমতা লাভ করেন। এগুলো তাঁদেরকে চাকরিসহ অন্যান্য ক্ষেত্রে; অর্থাৎ সামগ্রিক জীবনে অন্যদের থেকে এগিয়ে রাখে।

দর্শনের সাথে সামাজিক বিজ্ঞানের সম্পর্ক রয়েছে।সামাজিক বিজ্ঞানের দর্শন,দর্শনের শাখা যা সামাজিক বিজ্ঞানের ধারণা, পদ্ধতি এবং যুক্তি পরীক্ষা করে। এজন্য সামাজিক বিজ্ঞানসহ সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের বেশিরভাগ বিষয়ের শিক্ষার্থীদের দর্শন সম্পর্কে কোর্স করতে হয়।

দর্শন বা ফিলোসোফিতে কি কি কোর্স পড়ানো হয়

বিশ্ববিদ্যালয় ভেদে দর্শনের কোর্সের কিছুটা হেরফের বা রদবদল হতে পারে। নিচে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে ফিলোসোফি ডিপার্টমেন্টে সাধারণত যেসব কোর্স করানো হয় তা দেয়া হলো।

দর্শনের বই এর ছবি
দর্শনের কিছু বইয়া

প্রথম বর্ষের কোর্স

Introduction to Philosophy

History of Western Philosophy(Ancient & Medieval)

Introduction to Ethics

Introduction to Logic

Allied (1) Psychology

Allied (2) Economics/Sociology

Compulsory English

দ্বিতীয় বর্ষের কোর্স

History of Western Philosophy (Modern-1)

Symbolic Logic

Knowledge and Reality

Muslim Philosophy

Allied (3) History of World Civilization/Political Science

Allied (4) Statistics and Research Methodology

তৃতীয় বর্ষের কোর্স

History of Western Philosophy (Modern)-(II

Informal Logic and Critical Thinking

Meta-Ethics

Indian Philosophy

Philosophy of Mind

Contemporary Epistemology and Metaphysics

Modern Muslim Philosophy

Bangladesh Philosophy

চতুর্থ বর্ষের কোর্স

Post-Hegelian Philosophy

Business Ethics and Bio-Ethics

Social Philosophy

Contemporary Islamic Philosophy

Political Philosophy

Philosophy of Artificial Intelligence

Philosophy of Religion

Aesthetics & Philosophy of Art

দর্শন বা ফিলোসোফিতে উচ্চশিক্ষার সুযোগ

কিছু ফিলোসফির স্নাতক স্নাতকোত্তর বা পিএইচডি স্তরে দর্শনের পড়াশোনা করেন। প্রভাষক হিসাবে পেশা অর্জনের উদ্দেশ্য বা কেবল তাদের বিষয় বা তাদের উভয়ের ভালবাসার কারণে এটি হতে পারে।অন্যান্য আগ্রহের ক্ষেত্রগুলির মধ্যে রয়েছে আইন, রাজনীতি, নীতিশাস্ত্র, কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা, আন্তর্জাতিক উন্নয়ন এবং সমাজবিজ্ঞান।

প্রতি বছর পৃথিবীর সেরা বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে ফিলোসফির উপর প্রচুর স্কলারশিপ দেওয়া হয়।
তাই দেশে ও বিদেশে উচ্চশিক্ষা গ্রহণে কোনো সমস্যা নেই।

দর্শন বা ফিলোসোফি সাবজেক্টে বাস্তবভিত্তিক জ্ঞানের সুযোগ

সক্রেটিস, প্লেটো, এরিস্টটল
সক্রেটিস, প্লেটো এবং এরিস্টটল

দর্শন বা ফিলোসোফি ডিপার্টমেন্টে ফিলোসোফি বিষয়ক পড়াশোনার পাশাপাশি অর্থনীতি, রাষ্ট্রবিজ্ঞান, ইংরেজি, পরিসংখ্যানের মত কিছু বিষয় পড়ানো হয় যা শিক্ষার্থীদের বিভিন্ন জব সেক্টরে সাহায্য করে। ফিলোসোফি গ্র্যাজুয়েটদের Analytical skills ও Critical thinking abilities অন্যদের থেকে উন্নত হওয়ায় এবং নতুন আঙ্গিকে চিন্তা করার শক্তি থাকায় তাঁরা বিভিন্ন বিশেষায়িত সেক্টরে; যেমন আইন, লেখালেখি, সাংবাদিকতায় সৃজনশীলতার সাথে বিচরণ করতে পারেন।

আমরা সবাই Artificial Intelligence এর সাথে পরিচিত। কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার দর্শন (Philosophy of Artificial Intelligence) প্রযুক্তি দর্শনের একটি শাখা যা কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা এবং বুদ্ধি, নীতিশাস্ত্র, চেতনা, জ্ঞানবিজ্ঞান এবং মুক্ত ইচ্ছার জ্ঞান এবং বোঝার জন্য এর নিদর্শনগুলি অনুসন্ধান করে। বিশ্বাস করা হয়, দর্শন হলো মূল বিষয় যা কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তাকে উন্মুক্ত করবে। দর্শনের শিক্ষার্থীরা কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তাকে উন্নত করার জন্য গবেষণা করতে পারবেন। কারণ দর্শন মানুষের আচরণ, ব্যবহার বিশ্লেষণ ও মানব আচরণের উত্তম দিকগুলো তুলে ধরে এবং মানুষ কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার সাথে সরাসরি সম্পর্কিত।

এজন্য চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে দর্শন বিভাগে চতুর্থ বর্ষের শিক্ষার্থীদের Philosophy of AI নামে একটি কোর্স করানো হয়ে থাকে,যাতে এ বিষয়ে আগ্রহী শিক্ষার্থীরা পরবর্তীতে(Post Graduation) এ বিষয়ে বিস্তর জ্ঞান লাভ করে গবেষণায় লিপ্ত হতে পারেন।

দর্শনের শিক্ষার্থীরা যুক্তি গঠনের পাশাপাশি গঠনমূলক সমালোচনা করতে শিখেন। প্রায় প্রতিটি ফিলোসফার সমালোচিত হয়েছেন। ফিলোসফিতে প্রতিটি আর্গুমেন্ট বা যুক্তি পাশাপাশি বিরাজ করে, যা একজন শিক্ষার্থীকে সঠিকভাবে বিচার করতে ও অন্যের দৃষ্টিকোণকে সন্মান করতে শেখায়। দর্শন তাঁদের শেখায়, দুজন মানুষ একে অপরের সাথে বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক বজায় রেখেও কোনো বিষয়ে দ্বিমত পোষণ করতে পারেন।

ক্যারিয়ার গড়ার সুযোগ কেমন দর্শন বা ফিলোসোফি সাবজেক্টে

দর্শনের ক্যারিয়ার
দর্শনের ক্যারিয়ার

শিক্ষক, লেখক, গবেষক, Research Analyst, সাংবাদিক, NGO কর্মী, থেকে শুরু করে Multinational Company, Private Firm সহ অনেক জায়গাই দর্শন বা ফিলোসোফির ছাত্র ছাত্রীদের জন্য উন্মুক্ত।

একজন ফিলোসোফি গ্র্যাজুয়েট যদি যোগ্যতা রাখেন, তাহলে তিনি উপরোক্ত যেকোনো ক্ষেত্রে একটি সফল ক্যারিয়ার গড়তে পারবেন। এছাড়াও তাঁরা অন্যদের মতো বিসিএস ও ব্যাংক জবস্ পরীক্ষার মাধ্যমে একজন বিসিএস ক্যাডার এবং ব্যাংক কর্মকর্তা হতে পারবেন। আর শিক্ষা ক্যাডারে আলাদা করে সুযোগ তো থাকছেই। কলেজগুলোতে শিক্ষা ক্যাডার হয়ে শিক্ষক হিসেবে নিজের ক্যারিয়ারও গড়া সম্ভব এখানে।

2 thoughts on “দর্শন বা ফিলোসোফি সাবজেক্ট রিভিউ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *