মিয়ানমারে সৈন্য চলাচল রুখতে অবরোধ সাধারণ জনগণের

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

 মিয়ানমারে অভ্যুত্থানের বিরুদ্ধে প্রতিদিন বিক্ষোভে অংশ নিচ্ছেন হাজার হাজার মানুষ৷ গত বুধবার রেকর্ডসংখ্যক মানুষ এ প্রতিবাদে অংশ নিয়েছেন৷মিয়ানমারের ইয়াঙ্গুনে বিক্ষোভকারীরা সামরিক যানের চলাচল রুখতে রাস্তায় গাড়ি রেখে ব্যারিকেড তৈরি করেছেন৷ এরই প্রতিক্রিয়া হিসেবে সেনাবাহিনী ইয়াঙ্গুনে তাদের সেনা মোতায়েনের সংখ্যা বাড়িয়েছে।


এদিকে, ইয়াঙ্গুনে আরো সৈন্য মোতায়েন শুরুর খবরে শঙ্কা প্রকাশ করেছেন জাতিসংঘের কর্মকর্তা টম অ্যান্ড্রুস৷তিনি বলেন, ‘‘অতীতে সৈন্য মোতায়েনের সময় গণহারে হত্যা, আটক ও গুমের ঘটনা ঘটেছে৷ একইসঙ্গে গণবিক্ষোভের পরিকল্পনা ও সৈন্য মোতায়ন শুরুর খবরে আমি শঙ্কিত৷”


এ ব্যাপারে অ্যান্ডুসের সঙ্গে একমত মিয়ানমারে নিযুক্ত জাতিসংঘের বিশেষ দূত ক্রিস্টিন শ্র্যানার বার্গেনার৷  তিনি বলেন, “মিয়ানমারে ২১টি এথনিক সশস্ত্র গোষ্ঠী অভ্যুত্থানের বিরুদ্ধে৷ ফলে সংঘাতের আশঙ্কা অনেক বেশি৷”


উল্লেখ্য অভ্যুত্থানের দিন অং সান সু চিকে আটক করা হয়৷ তার বিরুদ্ধে ন্যাচারাল ডিজাস্টার ম্যানেজমেন্ট আইন ভঙ্গ ও অবৈধভাবে ছয়টি ওয়াকিটকি আমদানির অভিযোগ আনা হয়েছে৷ মঙ্গলবার ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে আয়োজিত শুনানিতে পরবর্তী শুনানির দিন ধার্য করা হয়েছে ১ মার্চ।


সূত্রঃ ডয়চে ভেলে

Leave a Reply

Your email address will not be published.