গ্রুপ আকারে শিক্ষার্থীদের দায়িত্ব পাচ্ছেন শিক্ষকরা, বাড়াতে হবে যোগাযোগ

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ বৃদ্ধি পাওয়ায় শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে চলমান ছুটি ৩০ জুন পর্যন্ত বেড়েছে। এ সময়ে অনলাইনে এবং টেলিভিশনসহ বিভিন্নি মাধ্যমে লেখাপড়া চলবে। এর পাশাপাশি শিক্ষার্থীদের মনস্তাত্ত্বিক সুরক্ষারও পদক্ষেপ নিয়েছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। প্রত্যেক শিক্ষকের অধীনে তাদের ভাগ করে দেওয়া হবে। এরপর শিক্ষকেরা তাদের অধীন শিক্ষার্থীদের সব বিষয়ে খোঁজখবর রাখবেন। চলতি সপ্তাহেই মন্ত্রণালয় থেকে এ নির্দেশনা জারি করা হবে বলে সূত্র নিশ্চিত করেছে।

এ বিষয়ে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের সচিব মো. মাহবুব হোসেন গণমাধ্যমকে বলেন, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে আসতে না পারায় শিক্ষার্থীর মধ্যে কোনো অভাববোধ সৃষ্টি যাতে না হয়, সেজন্য কো-কারিকুলাম অ্যাকটিভিটির মধ্যে তাদের রাখা হবে। শিক্ষকেরা ছাত্রছাত্রীদের নিজের সংস্পর্শে রাখবেন। বাবা-মাসহ তাঁদের অভিভাবকদের সঙ্গে যোগাযোগ রাখবেন। অনলাইনে ক্লাসে চিত্রাঙ্কন, বিভিন্ন ধরনের সংগীত, আবৃত্তিসহসাংস্কৃতিক কর্মকাণ্ডের অধীনে নিয়ে আসবেন।

তিনি বলেন, ‘শিক্ষার্থীদের স্বাস্থ্যবিধি বজায় রেখে কীভাবে মানসিকভাবে সুস্থ ও সবল রাখা যায়, তা বিবেচনা করবে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান। সর্বোপরি ছাত্রছাত্রীদের টিউটরিং বা নিবিড় একাডেমিক তত্ত্বাবধানের মধ্যে নিয়ে আসা হবে। বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে এটি চালু আছে।’ এ ব্যাপারে আগেও নির্দেশনা জারি করা হয়েছিল।’ আবার নতুন করে নির্দেশনা দেওয়া হবে বলে জানান তিনি

Leave a Reply

Your email address will not be published.